ঢাকা ০১:৫৪ পূর্বাহ্ন, বুধবার, ২২ মে ২০২৪, ৭ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

মেহের’পুরে নিয়ম বহির্ভূত’ভাবে স্কুলের গাছ বিক্রি

নিউজ ডেস্ক:
  • আপডেট সময় : ০৩:৪০:৩১ অপরাহ্ন, মঙ্গলবার, ৭ মে ২০২৪ ১৭৭ বার পড়া হয়েছে

মেহেরপুরের একটি মাধ্যমিক বিদ্যালয়ে নিয়ম বহির্ভূত ভাবে প্রায় ৫০ হাজার টাকা মূল্যের তিনটি গাছ বিক্রির অভিযোগ উঠেছে। মেহেরপুরের গাংনী উপজেলার লুৎফুন্নেছা মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের ভারপ্রাপ্ত প্রধান শিক্ষক মোশারফ হোসেনের বিরুদ্ধে গত বুধবার (০১ মে) ছুটির দিন দুটি মেহগনি ও একটি আম গাছ কেটে ৭ হাজার টাকায় বিক্রি করার অভিযোগ উঠেছে।

জানা গেছে, লুৎফুন্নেছা মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের সম্প্রতি নতুন ম্যানেজিং কমিটি গঠন করা হয়েছে। সেই নতুন ম্যানেজিং কমিটিকে ক্ষমতা হস্তান্তরের আগেই কোন রকম নিলাম ছাড়াই ভারপ্রাপ্ত প্রধান শিক্ষকের যোগসাজশে গাছ কেটে বিক্রি করে।

গাছ বিক্রির কোনো রেজুলেশন আছে কিনা জানতে চাইলে ভারপ্রাপ্ত প্রধান শিক্ষক বলেন, রেজুলেশন আছে। প্রধান শিক্ষক ইন্ডিয়াতে আছে। উনি অফিস কক্ষ তালাবদ্ধ করে রেখে গেছে। প্রধান শিক্ষক দেশে ফিরলে রেজুলেশন দেখানো হবে বলে জানান স্থানীয়দের।

এ বিষয়ে লুৎফুন্নেসা মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের ভারপ্রাপ্ত প্রধান শিক্ষক মোশারফ হোসেন সাংবাদিকদের কোন তথ্য দিতেই রাজি হননি। তথ্য চাওয়ায় উলটো চড়াও হন উপস্থিত সাংবাদিকদের উপর।

কিছু দিন পর দেশে ফিরলে মুঠোফোনে প্রধান শিক্ষক জাকির হোসেন কাছে এ বিষয়ে জানতে চাইলে তিনি বলেন, মোবাইলে কিছু বলা যাবে না। বিস্তারিত জানতে হলে স্কুলে আসতে হবে বলে ফোন কেটে দেন।

গতকাল সোমবার (৬ মে) স্কুল পরিদর্শন শেষে গাংনী উপজেলা মাধ্যমিক শিক্ষা অফিসার মোবারক হোসেন, নিয়ম বহির্ভূত ভাবে গাছ কর্তনের সততা স্বীকার করে বলেন তদন্ত পূর্বক তাদের বিরুদ্ধে আইনগত ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।

নিউজটি শেয়ার করুন

আপনার মন্তব্য

Your email address will not be published. Required fields are marked *

আপনার ইমেইল এবং অন্যান্য তথ্য সংরক্ষন করুন

আপলোডকারীর তথ্য
ট্যাগস :

মেহের’পুরে নিয়ম বহির্ভূত’ভাবে স্কুলের গাছ বিক্রি

আপডেট সময় : ০৩:৪০:৩১ অপরাহ্ন, মঙ্গলবার, ৭ মে ২০২৪

মেহেরপুরের একটি মাধ্যমিক বিদ্যালয়ে নিয়ম বহির্ভূত ভাবে প্রায় ৫০ হাজার টাকা মূল্যের তিনটি গাছ বিক্রির অভিযোগ উঠেছে। মেহেরপুরের গাংনী উপজেলার লুৎফুন্নেছা মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের ভারপ্রাপ্ত প্রধান শিক্ষক মোশারফ হোসেনের বিরুদ্ধে গত বুধবার (০১ মে) ছুটির দিন দুটি মেহগনি ও একটি আম গাছ কেটে ৭ হাজার টাকায় বিক্রি করার অভিযোগ উঠেছে।

জানা গেছে, লুৎফুন্নেছা মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের সম্প্রতি নতুন ম্যানেজিং কমিটি গঠন করা হয়েছে। সেই নতুন ম্যানেজিং কমিটিকে ক্ষমতা হস্তান্তরের আগেই কোন রকম নিলাম ছাড়াই ভারপ্রাপ্ত প্রধান শিক্ষকের যোগসাজশে গাছ কেটে বিক্রি করে।

গাছ বিক্রির কোনো রেজুলেশন আছে কিনা জানতে চাইলে ভারপ্রাপ্ত প্রধান শিক্ষক বলেন, রেজুলেশন আছে। প্রধান শিক্ষক ইন্ডিয়াতে আছে। উনি অফিস কক্ষ তালাবদ্ধ করে রেখে গেছে। প্রধান শিক্ষক দেশে ফিরলে রেজুলেশন দেখানো হবে বলে জানান স্থানীয়দের।

এ বিষয়ে লুৎফুন্নেসা মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের ভারপ্রাপ্ত প্রধান শিক্ষক মোশারফ হোসেন সাংবাদিকদের কোন তথ্য দিতেই রাজি হননি। তথ্য চাওয়ায় উলটো চড়াও হন উপস্থিত সাংবাদিকদের উপর।

কিছু দিন পর দেশে ফিরলে মুঠোফোনে প্রধান শিক্ষক জাকির হোসেন কাছে এ বিষয়ে জানতে চাইলে তিনি বলেন, মোবাইলে কিছু বলা যাবে না। বিস্তারিত জানতে হলে স্কুলে আসতে হবে বলে ফোন কেটে দেন।

গতকাল সোমবার (৬ মে) স্কুল পরিদর্শন শেষে গাংনী উপজেলা মাধ্যমিক শিক্ষা অফিসার মোবারক হোসেন, নিয়ম বহির্ভূত ভাবে গাছ কর্তনের সততা স্বীকার করে বলেন তদন্ত পূর্বক তাদের বিরুদ্ধে আইনগত ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।